লিখিত না দিয়েই ডাক পড়ল মৌখিকেবিয়ে করে হাইকোর্টে জামিন চাইলেন ধর্ষণ মামলার আসামিছুটিতে করোনার সংক্রমণ বাড়তে পারে : ফাউসিমালয়েশিয়া প্রবাসীদের দ্রুত পাসপোর্ট প্রদানে স্বারকলিপিফাখরিজাদেহ হত্যার প্রতিশোধের হুমকির মধ্যেই পারস্য উপসাগরে মার্কিন রণতরী
No icon

আমার সঙ্গে বড় অন্যায় করা হয়েছিল: সৌরভ গাঙ্গুলী

ভারতের সফল অধিনায়কদের মধ্যে অন্যতম সৌরভ গাঙ্গুলী। ২০০৫ সালে জিম্বাবুয়ে সফরে সিরিজ জয় করে দেশে ফেরার পরও সৌরভকে অধিনায়কের দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেয়া হয়। ১৫ বছর আগের সেই ক্ষোভ প্রকাশ করে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের (বিসিসিআই) বর্তমান সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলী বলেছেন, অধিনায়ক হিসেবে আমি মাত্রই জিম্বাবুয়ে থেকে সিরিজ জিতে দেশে ফিরেছি। দেশে ফেরার পরই জানতে পারলাম আমাকে নেতৃত্ব থেকে বরখাস্ত করা হচ্ছে।  ভারতের সাবেক এ তারকা ক্রিকেটার আরও বলেছেন, আমার নেতৃত্বে ২০০৩ সালের ফাইনালে খেলে ভারত। তাই ২০০৭ সালের বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্ন দেখেছিলাম। আমার স্বপ্ন দেখার কারণও ছিল। দলটা আমার নেতৃত্বে ঘরে-বাইরে পাঁচ বছর ধরে ভালো খেলেছিল। হঠাৎ করে আমাকে বাদ দেয়া হল কেন? প্রথমে আমাকে বলা হল তুমি ওয়ানডে দলে নেই, তারপর বলা হল টেস্ট দল থেকেও বাদ।

ভারতের হয়ে ১৬৪টি ওয়ানডে আর ৪৯টি টেস্ট ম্যাচে নেতৃত্ব দেয়া সৌরভ আরও বলেছেন, আমি কোচ গ্রেগ চ্যাপেলকে একা দোষ দেব না। বিসিসিআইকে আমার বিরুদ্ধে গোপনে ইমেল করে ও হয়তো শুরুটা করেছিল। তবে ক্রিকেট টিমটা একটা পরিবারের মতো। সেখানে অনেকের অনেক মতামত থাকতেই পারে। ভুল বোঝাবুঝি হতেই পারে। কোনো কিছু বলার থাকলে সরাসরি বলা উচিত। পেছন থেকে ছুরি মারার কি প্রয়োজন!

দেশের হয়ে ১১৩টি টেস্ট আর ৩১১টি ওয়ানডে ম্যাচে অংশ নিয়ে ৩৮টি সেঞ্চুরির সাহায্যে ১৮ হাজার ৫৭৫ রান সংগ্রহ করা সৌরভ আরও বলেছেন, একজন বিদেশি কোচের কথায় আমার অধিনায়কত্ব চলে যেতে পারে না। বোর্ডের সমর্থন ছাড়া এটা হতে পারে না। আমাকে বাদ দেয়ার পেছনে অনেকের হাত ছিল। কিন্তু চাপের মুখে আমি ভেঙে পড়িনি। আমি আত্মবিশ্বাস হারাইনি।

২০০৮ সালে ক্রিকেট থেকে বিদায় নেন সৌরভ গাঙ্গুলী। ১২ বছরের ব্যবধানে ভারতীয় সাবেক এ সফল অধিনায়ক নিজ দেশের ক্রিকেট বোর্ডের বর্তমান সভাপতি। ক্রিকেট বিশ্লেষকদের অনেকেই বলছেন দ্রুত সময়ের মধ্যেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) চেয়ারম্যান হিসেবে দেখা যেতে পারে সৌরভকে।