৭ দেহরক্ষীসহ যুবলীগের শামীম আটকপ্রথম প্রতিরক্ষামন্ত্রী হিসেবে তেজস যুদ্ধবিমানে রাজনাথছাত্রলীগের পর যুবলীগকে ধরেছি : প্রধানমন্ত্রীরোহিঙ্গারা বাংলাদেশের জন্য বড় বোঝা: প্রধানমন্ত্রীখালেদের বিরুদ্ধে গুলশান-মতিঝিলে চার মামলা
No icon

কুলাউড়া থেকে ঢাকা ও চট্টগ্রামে ট্রেন চলাচল শুরু

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার বরমচাল এলাকায় গতকাল রোববার রাত সাড়ে ১১টায় ঢাকাগামী আন্তনগর উপবন এক্সপ্রেস ট্রেনের বগি লাইনচ্যুত হওয়া ঘটনার পর সিলেটের সঙ্গে ঢাকা ও চট্টগ্রামের ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। তবে আজ সোমবার সকাল থেকে উপবন এক্সপ্রেসকে জয়ন্তিকা ট্রেন করা হয়। বেলা সাড়ে ১২টায় জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস কুলাউড়া থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়ার মাধ্যমে ট্রেন চলাচল শুরু হয়েছে। বরমচালে রেললাইন মেরামত না হওয়া পর্যন্ত সিলেটের সব ট্রেন কুলাউড়া থেকে চলাচল করবে। শমশেরনগর রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার কবির আহমদ বলেন, গত রাতের দুর্ঘটনার পর আখাউড়া জংশন স্টেশন থেকে উদ্ধারকারী ট্রেন বরমচালে পৌঁছে উদ্ধারকাজ শুরু করে। ঢাকাগামী উপবন ট্রেনটি জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ট্রেন নামে দুপুরে কুলাউড়া ছেড়ে যায়। চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা উদয়ন এক্সপ্রেস ট্রেন আজ বেলা ১টা পর্যন্ত শমশেরনগর স্টেশনে আটকা পড়েছিল। ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা পারাবত এক্সপ্রেস ট্রেনটি শ্রীমঙ্গল স্টেশনে আটকা পড়ে। এ দুটি ট্রেন কুলাউড়া স্টেশনে যাওয়ার পর উদয়ন ট্রেনটিকে পাহাড়িকা এক্সপ্রেস ট্রেন করে চট্টগ্রামের উদ্দেশে ও পারাবত ট্রেনটি বিকেলে পারাবত এক্সপ্রেস ট্রেন হয়ে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যাবে।

এদিকে পারাবত এক্সপ্রেসের পাঁচটি বগি খলে পড়ে যাওয়ার ঘটনায় আজ সোমবার সকালে সিলেট থেকে কালনী এক্সপ্রেসের যাত্রা বাতিল করা হয়েছে। তবে বরমচালে কালভার্ট মেরামত না হওয়া পর্যন্ত সিলেট স্টেশনের বদলে কুলাউড়া রেলস্টেশন ব্যবহার করা হবে বলে জানিয়েছেন সিলেটের সহকারী স্টেশন মাস্টার সজীব কুমার মালাকার।

সিলেট রেলওয়ে স্টেশন সূত্রে জানা গেছে, সিলেট স্টেশনের সঙ্গে সারা দেশের সঙ্গে আন্তনগরসহ ১১টি ট্রেন চলাচল করে। রেল দুর্ঘটনার পর সিলেটের সঙ্গে সারা দেশের রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। বাতিল হওয়া উপবন এক্সপ্রেসের যাত্রীদের টিকিট ফেরত নেওয়ার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। সিলেট স্টেশনের সঙ্গে সারা দেশের রেলযোগাযোগ বন্ধ থাকলে কুলাউড়া স্টেশন হয়ে সারা দেশের সঙ্গে রেলযোগাযোগ স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা চলছে।

সিলেটের সহকারী স্টেশন মাস্টার সজীব কুমার মালাকার বলেন, ভেঙে যাওয়া কালভার্ট মেরামতে রেলওয়ের প্রকৌশলী ও কর্মীরা কাজ করছেন। আজ রাতের মধ্যে কালভার্টটি মেরামত করে রেল চলাচল স্বাভাবিক করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ভেঙে যাওয়া কালভার্টটি ঝুঁকিপূর্ণ ছিল না। সিলেট-আখাউড়া রেলপথে মাত্র একটি ঝুঁকিপূর্ণ কালভার্ট আছে। সেটি মাইজগাঁও ও ভাটেরা স্টেশনের মাঝামাঝিতে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সিলেটের সঙ্গে রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক রাখতে ঢাকা-চট্টগ্রাম এবং আখাউড়া থেকে আসা ট্রেনগুলো থামবে এবং একই স্টেশন থেকে আবার নিজ নিজ গন্তব্যে চলাচল করবে। সিলেট স্টেশন থেকে যারা টিকিট কেটেছেন তাঁরা কালভার্টে রেললাইন মেরামত না হওয়া পর্যন্ত কুলাউড়া স্টেশন দিয়ে চলাচল করতে পারবেন।