ভারতে ভয়াবহ বিস্ফোরণে কয়েক জনের প্রাণহানির আশঙ্কাবাংলাদেশ ব্যাংক কর্মকর্তাদের তালিকা চেয়েছেন হাইকোর্টফেব্রুয়ারির দ্বিতীয় সপ্তাহে খুলতে পারে শিক্ষাঙ্গনবঙ্গবন্ধু সেতু এলাকায় তীব্র যানজটবঙ্গবন্ধু সেতু এলাকায় তীব্র যানজট
No icon

শিশুর ঘুমের সমস্যায় করণ

শিশুরাও ঘুমের সমস্যায় ভোগে। ১ থেকে ৫ বছর বয়সের শিশুদের মাঝেও শতকরা ২৫ জন শিশু বিভিন্ন ধরনের ঘুমের সমস্যায় ভোগে। এই সমস্যা অধিকাংশ ক্ষেত্রে ক্ষণস্থায়ী হয়। কিছু শিশুর ক্ষেত্রে তাদের ঘুমের সমস্যা দৈনন্দিন কর্মকাণ্ড এবং তাদের সার্বিক সুস্থতায় তাপর্যপূর্ণ নেতিবাচক প্রভাব রাখে। প্রথম অবস্থায় অনেক বাবা-মা বুঝতে পারেন না যে শিশুর ঘুমের সমস্যা হচ্ছে। যখন শিশুরা আশানুরূপ পড়াশোনা করতে পারে না, স্কুলের সময় ঘুমায়, মাথাব্যথা হয়, মনোযোগে সমস্যা হয়, মেজাজ খিটখিটে হয়ে যায়, স্কুল থেকে অভিযোগ আসে কিংবা শিশু কথায় কথায় রাগ দেখাতে শুরু করে; তখন বাবা-মা বুঝতে পারে ঘুমের সমস্যা হচ্ছে। এ সময় অবশ্যই চিকিসকের পরামর্শ নিতে হবে।

বয়স অনুযায়ী শিশুর প্রয়োজনীয় ঘুমের সময়-তালিকা

১-৪ সপ্তাহ : ১৬-১৭ ঘণ্টা

১-৪ মাস : ১৬-১৭ ঘণ্টা। রাতের ঘুমে পরিমাণ বাড়তে থাকে

৪ মাস-১ বছর : ১৪-১৫ ঘণ্টা

১-৩ বছর : ১২-১৪ ঘণ্টা। রাতেই বেশি ঘুমায়, দিনে একবার ন্যাপ নেয় অথবা অল্প সময়ের জন্য ঘুমায়

৩-৬ বছর : ১১-১২ ঘণ্টা

৭-১২ বছর : ১০-১২ ঘণ্টা

১৩-১৮ বছর : ৬-৮ ঘণ্টা

শিশুর ঘুমের সমস্যা দূর করতে পরামর্শ

১. শিশুর ভালো ঘুমের জন্য পরিচিত, পরিচ্ছন্ন এবং আরামদায়ক বিছানা দিতে হবে। শোবার ঘরটা কিছুটা অন্ধকার, শান্ত, নীরব ও কোলাহলমুক্ত রাখতে হবে।

২. প্রতিদিন নির্দিষ্ট সময়ে ঘুমাতে হবে এবং নির্দিষ্ট সময়ে ঘুম থেকে জাগতে হবে এবং বিছানা ছাড়তে হবে।

৩. নিয়মিত ব্যায়াম, খেলাধুলা করতে হবে।

৪. কোনো শারীরিক বা মানসিক রোগ থাকলে তার চিকিসা করতে হবে।