গাজীপুরে টেক্সটাইল মিলের গুদামে আগুন,আরও একটি উপশহর করতে যাচ্ছে রাজউকসোনালী ব্যাংকের খেলাপি ঋণ যথেষ্ট উদ্বেগজনকব্রাজিলের ঐতিহাসিক জয়ে টিএসসিতে সমর্থকদের উল্লাসকুমিল্লার ৫ ইউপিতে ভোটগ্রহণ চলছে
No icon

মেসির বিশ্বকাপে নামছে আর্জেন্টিনা

আরও একবার স্বপ্নের বিশ্বকাপ জয়- যা আসব আসব করেও কেটে গেছে ৩৬টি বছর। একটিবার মেসির হাতে সোনালি ট্রফি- তাও পাশ কাটিয়ে গেছে একবার। এভাবেই আক্ষেপ আর অপেক্ষা যে প্রজন্মের সন্তাপ বাড়িয়েছে, এবার তাদের জন্যই মেসির শেষ আরাধনা। আজ নিজের জন্যও মেসির অন্যরকম এক বোধন, যে মহাযজ্ঞে তিনি খুঁজে এনেছেন ২৬টি নীল পদ্ম। এখানে আমরা যে ২৬ জন, তাদের অনেকেরই প্রথম বিশ্বকাপ। তারা প্রত্যেকেই দারুণ খেলোয়াড়। তাদের বলেছি, দেখ পরের বিশ্বকাপে তুমি নাও থাকতে পার। হয়তো এটাই তোমার শেষ বিশ্বকাপ। আমারও এটাই শেষ। সবাইকে তাই এমন কিছু করতে হবে, যাতে করে তোমরা গর্ব করতে পার। তোমরাই এগিয়ে নিয়ে যাবে আর্জেন্টিনাকে। হেডফোনে স্প্যানিশের ইংলিশ ভার্সন শুনলেও প্রেস কনফারেন্সে মেসির মুখের হাসি বলে দিচ্ছিল এবার বেশ গুছিয়েই কাতারে এসেছেন। আর এভাবেই নিজের শেষ বিশ্বকাপের প্রথম শুরু আজ তাঁর সৌদি আরবের বিপক্ষে।মেসিকে নিয়ে এখানে এতটাই মাতামাতি, কাতারে আসা মেসির দেশীয় সাংবাদিকদের অনেকেই দেসপেদিদো লিউও বলে পিটিসি দিচ্ছে। গুগল ট্রান্সলেটে শব্দ দুটি দিয়ে উদ্ধার করা গেল, তাঁরা আসলে এই বিশ্বকাপকে ফেয়ারওয়েল লিও বলেই ধরে নিয়েছেন। ফুটবলবিশ্বও জানে, এটাই তাঁর সুযোগ ট্রফি স্পর্শ করার।

শুধু জানে না কতটা ফিট, মানসিকভাবে কতটা চাঙ্গা আছেন এই ফুটবল জাদুকর। গতকাল অনুশীলনে সল্ফ্ভ্রমের দূরত্ব আর ভীতির সংকট কাটিয়ে যতটা কাছাকাছি পৌঁছানো গেছে, তাতে অন্তত এটা বলা যায়, লিওনেল মেসি তৈরি। তিনি প্রস্তুত বিসর্জনের বিশ্বকাপে বিজয়ের সুর তুলতে। প্রতিপক্ষ হিসেবে সৌদি আরব কতটা শক্তিশালী, তা নিয়ে আলোচনা করার খুব বেশি কিছু নেই। শুধু এটুকু জানালেই চলবে, র;্যাঙ্কিংয়ে সৌদি আরব ৫১ আর আর্জেন্টিনা ১। এটা ঠিক, সৌদি আরব তাদের বিশ্বকাপ বাছাইয়ে ১৮টি ম্যাচের মধ্যে হেরেছে মাত্র একটিতে। তার পরও আজকের ম্যাচে একটি রেকর্ড নিয়ে বরং বেশি আলোচনা চলছে কাতারে। ২০১৯ সালের শুরু থেকে এখন পর্যন্ত ৩৬ ম্যাচে হারের মুখ দেখেনি আর্জেন্টিনা। মাঝে ব্রাজিলকে হারিয়ে কোপা আমেরিকা জিতেছে। ইতিহাস বলছে, ৩৭ ম্যাচ অপরাজিত থাকার রেকর্ড রয়েছে শুধু ইতালির। আজ সৌদি আরবের সঙ্গে ড্র করলেই ইতালির সেই রেকর্ড ছুঁয়ে ফেলবে আর্জেন্টিনা। ২০১৮ সালের অক্টোবর থেকে ২০২১ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত টানা ৩৭ ম্যাচ অপরাজেয় ছিল ইতালি। ১৯৯৩ থেকে ১৯৯৬ সাল পর্যন্ত ব্রাজিলেরও ৩৬ ম্যাচ অপরাজিত থাকার রেকর্ড ছিল। তবে আজ সেসব রেকর্ড ভাঙার সুযোগ রয়েছে আর্জেন্টিনার।