তিন ঝুঁকিতে বিশ্ব অর্থনীতিযুক্তরাষ্ট্রের সামরিক সহায়তা পাচ্ছে মিশরসবার আগে সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডকরোনার নতুন তাণ্ডবে ফের কাঁপছে গোটা বিশ্বক্রেডিট কার্ডে নতুন কর্মক্ষেত্র
No icon

পরীমণি মামলার সাক্ষ্যগ্রহণের দিন জানাল আদালত, কবে.‌.‌.‌

একটা সময় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। তারপর জামিন নিয়ে নানা ঘটনা। শেষ অবধি জামিন মিলতে ছবির শুটিংয়েও যোগ দিয়েছিলেন। কিন্তু ফের একবার আদালতে যেতে হচ্ছে পরীমণিকে। মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে রাষ্ট্রপক্ষের আনা মামলায় পরীমণি সহ তিনজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছে আদালত। পরীমণি এবং অন্য দুই অভিযুক্ত আশরাফুল ইসলাম, কবির হোসেন এই মামলায় নিজেদের নির্দোষ দাবি করে আদালতের কাছে ন্যায়বিচার চেয়েছিলেন। যদিও মামলা থেকে অব্যাহতির আবেদন নাকচ হয়ে যায়। এই মামলায় এবার ঢাকার ১০ নং বিশেষ জজ আদালতের বিচারক সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু করবেন ১ ফেব্রুয়ারি।
গত বছর ৪ আগস্ট মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে পরীমণিকে গ্রেপ্তার করা হয়। ৪ অক্টোবর আদালতে পরীমণি সহ তিনজনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র জমা দেয় পুলিশের অপরাধ দমন বিভাগ। অভিযোগপত্রে ১৯ জনকে সাক্ষী করা হয়। অভিযোগপত্রে বলা হয়, পরীমণির বাড়ি থেকে বাজেয়াপ্ত মাদকদ্রব্যের বৈধ কোনও নথিপত্র ছিল না। এমনকি এই বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে পরীমণি নাকি সন্তোষজনক জবাব দিতে পারেননি। বলা হয়েছে, পরীমণির গাড়িটিও মাদকদ্রব্য বহনে ব্যবহৃত হত।
পরীমণির পক্ষের মানুষজন বলছেন, মিথ্যে অভিযোগে ফাঁসানো হচ্ছে অভিনেত্রীকে। বিচারের নামে হেনস্থা করা হচ্ছে তাঁকে। পরীমণি এই বিষয়ে মুখ খোলেননি।