গাজীপুরে টেক্সটাইল মিলের গুদামে আগুন,আরও একটি উপশহর করতে যাচ্ছে রাজউকসোনালী ব্যাংকের খেলাপি ঋণ যথেষ্ট উদ্বেগজনকব্রাজিলের ঐতিহাসিক জয়ে টিএসসিতে সমর্থকদের উল্লাসকুমিল্লার ৫ ইউপিতে ভোটগ্রহণ চলছে
No icon

ইন্দোনেশিয়ায় ফুটবল মাঠে দু’পক্ষের সংঘর্ষে নিহত বেড়ে ১৭৪

ইন্দোনেশিয়ার পূর্বাঞ্চলের মালাং শহরে ফুটবল খেলায় জয়-পরাজয়কে কেন্দ্র করে দুপক্ষের সংঘর্ষ ও পদদলিত হয়ে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৭৪ জনে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও ১৮০ জন। স্থানীয় সময় শনিবার (১ অক্টোবর) রাতে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, শহরের কানজুরুহান স্টেডিয়ামে ফুটবল খেলার আয়োজন করা হয়েছিল। আরেমা এফসি ও পেরসেবায়া সুরাবায়া নামের দুটি ফুটবল ক্লাবের মধ্যে খেলা অনুষ্ঠিত হয়। খেলায় আরেমাকে ৩-২ গোলে হারায় পেরসেবায়া। দুই দশকের বেশি সময়ের মধ্যে পেরসেবায়ার কাছে এই প্রথম কোনো ম্যাচে হারলো আরেমা। কিন্তু হার মানতে নারাজ তারা। এক পর্যায় মাঠে নেমে সমর্থকরা হট্টগোল করতে থাকেন। এক পর্যায়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গিয়ে চড়াও হয় পুলিশ। দেশটির পুলিশ জানিয়েছে, স্টেডিয়ামে থাকা আরেমার দর্শকরা মাঠে নেমে বিশৃঙ্খলা শুরু করে। তাদের থামাতে কাঁদানে গ্যাস ছোড়ে পুলিশ। এতে দর্শকরা আতঙ্কিত হয়ে হুড়াহুড়ি করে দৌড়াতে থাকে। এ সময় পদদলিত হয়ে নিহত হন অনেকে। এ ঘটনাকে দাঙ্গা বলে উল্লেখ করেছে পুলিশ।

দেশটির প্রধান নিরাপত্তাবিষয়ক মন্ত্রী বলেন, স্টেডিয়ামটিতে দর্শক ধারণ ক্ষমতা ৩৮ হাজার। তবে সেখানে ৪২ হাজার দর্শক উপস্থিত ছিল শনিবার। তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত ইন্দোনেশিয়ার বড় লিগের সব ম্যাচ বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট জোকো উইদোদো। ইন্দোনেশিয়ায় আগামী বছর মে ও জুন মাসে ফিফা অনূর্ধ্ব-২০ বিশ্বকাপের আয়োজন করার কথা রয়েছে।

এর আগে ১৯৬৪ সালে অলিম্পিকের বাছাই পর্বে পেরু-আর্জেন্টিনার মধ্যে লিমায় অনুষ্ঠিত খেলায় পদদলিত হয়ে ৩২০ জন নিহত হন। সে ঘটনায় আহত হয়েছিলেন আরও এক হাজার খেলাপ্রেমী।